আজ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

লন্ডনে এক সপ্তাহে একাধিক ডাকাতি : টার্গেট বাঙালী ঘর

নাইফ ক্রাইম এবং এসিড এ্যাটাকের পর ইস্ট লন্ডনে অপরাধের নতুন সংযোজন চুরি-ডাকাতি। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে একাধিক চুরি ডাকাতি হয়েছে- টাওয়ার হ্যামলেটস এলাকায়। ডাকাতদের টার্গেটে যেনো পরিনত হয়েছে বাঙালী মালিকানাধীন ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।

মাত্র এক সপ্তাহ আগে গত ২৬ জুলাই বৃহস্পতিবার রাতে হোয়াইটচ্যাপলের সিডনী স্ট্রীটের এক বাঙালী ঘরে দুধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। অস্ত্রের মুখে ডাকাতরা লুট করে নিয়ে যায়, স্বর্ন, নগদ অর্থ, দামী ঘরিসহ বেশ কিছু মালামাল। ডাকাতরা এ সময় ঘরের এক শিশুকে জিম্মি করার চেষ্ঠা চালায়।

এর পর গত ১ জুন বুধবার রাতে হোয়াইটচ্যাপল মাকের্টের তিনটি বাঙালী মালিকানাধীণ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ডাকাতরা হানা দেয়। তছনছ করে পুরো অফিস। নিয়ে যায় বিপুল পরিমান অর্থ। ডাকাতরা লুট কওে কমিউনিটির পরিচিত মুখ ও গ্রেটার সিলেট কাউন্সিলের চেয়ার ব্যারিস্টার আতাউর রহমান ও সাবেক সেক্রেটারী মির্জা আসহাব বেগের অফিস।

তৃতীয় ডাকাতি সংঘটিত হয়, বেথনালগ্রীনের ওল্ডফোর্ড রোডের থমাস হলিউড হাউজে। বহুতল এই ভবনটির ১০ তলায় মঙ্গলবার রাত ১টায় ডাকাতরা দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশের চেস্টা চালায়। সে সময় ঘরের মালিক ছিলেন পরিবার নিয়ে হলিডে কাটাতে। ডাকাতরা দরজা ভাঙ্গার সময় পাশের প্রতিবেশী টের পেলে তিনি পুলিশকে খবর দেন। সাথে সাথে পুলিশ এসে ডাকাতি প্রতিরোধ করে। তবে কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। ঘরেরও কোন মালামাল নিয়ে যেতে পারেনি ডাকাতরা। এই ঘরটির মালিক বেথনালগ্রীনের ব্যবসায়ী হাফিজ আব্দুল হক। তিনি জানান, এই ঘটনার পর তিনি বেশ আতংকিত। বিশাল এই ভবনটির কোথাও কোন সিসি ক্যামেরা না থাকায় পুলিশও তদন্ত পরিচালনায় করতে পারছেনা বলে জানান তিনি।

একাধিক এসব ডাকতির ঘটনায় টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের পদক্ষেপ জানতে কমিউনিটি সেইফটির দায়িত্বে থাকা ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলার আসমা বেগমের সাথে যোগাযোগ করা হলেও তার কোন সাড়া মিলেনি।

৪ responses to “লন্ডনে এক সপ্তাহে একাধিক ডাকাতি : টার্গেট বাঙালী ঘর”

  1. Hurrah, that’s what I was exploring for, what a information! existing here at this website, thanks admin of
    this web site.

  2. Can I just say what a relief to find someone who actually knows what theyre talking about on the internet. You definitely know how to bring an issue to light and make it important. More people need to read this and understand this side of the story. I cant believe youre not more popular because you definitely have the gift.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: