আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ঠাকুরগাঁও-৩ আসন দীর্ঘ ২৭ বছর পর আশা পূরন বিএনপি’র জাহিদুর রহমান জাহিদের

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঠাকুরগাঁও- ৩ (পীরগঞ্জ-রাণীশংকৈল) আসনে দীর্ঘ ২৭ বছর পর বিজীয় হয়ে আশা পূরণ হয়েছে বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান জাহিদের। ১৯৯১ সাল থেকে নির্বাচন করে আসছেন তিনি। কিন্তু একবাও জয়ের মুখ দেখেননি। তাই এবার আগে থেকেই পীরগঞ্জ রাণীশংকৈল উপজোর সাধারণ মানুষের সাথে মিশে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন তিনি। নির্বাচনে বারবার হেরে যাওয়ায় সহানুভূতির কারণে এবার জয়ী হয়েছেন বলে মনে করছেন সাধারণ ভোটাররা।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে এবার চতুর্মুখী লড়াই হয়েছে। এবার নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী ওয়ার্কাস পার্টির ইয়াসিন আলী, ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান জাহিদ, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও সাবেক এমপি স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমদাদুল হক এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাবেক এমপি হাফিজউদ্দিন আহম্মেদ এর মধ্যে তীব্র প্রতিদ্ব›দ্বীতা হয়।
পীরগঞ্জ ও রানীশংকৈল উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার সূত্র জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান জাহিদ (ধানের শীষ) প্রতীকে ৮৮ হাজার ৫১০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আ’লীগ নেতা ইমদাদুল হক (মটরগাড়ী মার্কা) ৮৪ হাজার ৩৮৫ ভোট পায়। মহাজোটের প্রার্থী ইয়াসিন আলী (নৌকা) ৩৮ হাজার ৬৩ ভোট পেয়ে তৃতীয় হন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী হাফিজউদ্দিন আহম্মেদ (লাঙ্গল) ২৭ হাজার ১৮২ ভোট পেয়ে চতুর্থ হন। এছাড়াও এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী গোপাল চন্দ্র রায় (সিংহ) ৫৪৮, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী নাজিম উদ্দীন আহম্মেদ (হাতপাখা মার্কা) ১ হাজার ৫৩, বাম গণতান্ত্রিক জোটের বাংলাদেশের কমিউনিষ্টি পার্টির প্রার্থী প্রভাত সমীর শাহজাহান আলম (কাস্তে মার্কা) ৯৭০ এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রার্থী শাফি আল আসাদ (আম মার্কা) নিয়ে ১০৯ ভোট পেয়েছেন।
১৯৯১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে আওয়ামী লীগের মকলেসুর রহমান নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সেবার উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান বিএনপি থেকে প্রথমবারের মতো ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করে পঞ্চম অবস্থানে থাকেন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইমদাদুল হক ৫৫ হাজার ৯৫৩ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সেবার বিএনপির প্রার্থী ছিলেন আবদুল মালেক। ২০০১ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টির হাফিজউদ্দিন আহম্মেদ লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করে ৮৯ হাজার ৪৬৮ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সেবার ৮ হাজার ৩৫৯ ভোট পেয়ে তৃতীয় হন বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান জাহিদ।
নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন হয় জোটবদ্ধভাবে। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতা ইমদাদুল হক দলীয় মনোনয়ন পেয়েও দলের হাইকমান্ডের নির্দেশে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে হয় তাকে। সেবার মহাজোটের প্রার্থী জাতীয় পার্টির হাফিজউদ্দিন আহম্মেদ লাঙ্গল প্রতীকে ১ লাখ ৬০ হাজার ১০৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী বিএনপির প্রার্থী জাহিদুর রহমান জাহিদ ৪৬ হাজার ৫৪৫ ভোট পায়। ২০১৪ সালের দশম নির্বাচনে বিএনপি ভোট বর্জন করলে লড়াই হয় ওয়ার্কাস পার্টির ইয়াসিন আলী ও জাতীয় পার্টির হাফিজ উদ্দীনের মধ্যে।

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: