আজ ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং

৮শ বছরের পুরনো মসজিদ ॥ ঐতিহ্য রক্ষার দাবী এলাকাবাসীর

৮শ বছরের প্রাচীন মসজিদের সন্ধান পাওয়া গেছে। নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার মোজাফরপুর ইউনিয়নের হারুলিয়া গ্রামে অবস্থিত ৮শ বছরের প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী এ মসজিদটি জৌলুস হারিয়ে জরাজীর্ণ অবস্থায় কোনো রকম টিকে আছে। প্রতিদিন ঝুঁকি নিয়ে মসজিদটিতে নামাজ আদায় করছেন গ্রামবাসী। ঝুঁকি এড়াতে গ্রামের লোকজন ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার মসজিদের সংস্কার কাজ করিয়েছেন। দ্রুত মসজিদটির সংস্কার করা না হলে হারিয়ে যেতে পারে ঐতিহ্যবাহী এ স্থাপনাটি। তাই এলাকাবাসী মসজিদটি সংস্কার ও রক্ষার দাবি জানিয়েছেন।
মসজিদটির প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা সম্পর্কে হারুলিয়া গ্রামের কেউ সুনির্দিষ্ট তথ্য দিতে পারেননি। কেউ বলেন, মোগল শাসনামলে ১২০০ খ্রিষ্টাব্দে শাইখে মুহাম্মদ ইয়ার নামক ধর্মপ্রাণ এক ব্যক্তি মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করেন। আবার কেউ বলেন, মসজিদটি রাজা লক্ষণ সেনের আমলে নির্মিত হয়েছে। তবে গ্রামের প্রবীণ ব্যক্তিরা জানান, গাইন সম্প্রদায়ের লোকেরা মসজিদটি নির্মাণ করেছিলেন। তাই একে গাইনী মসজিদ বলা হয়।
মসজিদের ঈমাম মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ জানান, মসজিদের ভেতরের দেয়ালের গায়ে ফার্সিতে শাইখে মুহাম্মদ ইয়ারের নাম এবং ১২শ’ খ্রিষ্টাব্দ লেখা রয়েছে। তাই ধারণা করা হচ্ছে যে, শাইখে মুহাম্মদ ইয়ারই মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা এবং তিনি ১২শ’ খ্রিষ্টাব্দে তা প্রতিষ্ঠা করেন।
হারুলিয়া গ্রামের নতুন-প্রবীণ বেশ কয়েকজন বাসিন্দার সাথে এ বিষয়ে কথা হলে তারা জানান, মোগল আমলে ইখতিয়ার উদ্দিন মুহাম্মদ বিন বখতিয়ার খিলজীর শাসনকালে মসজিদটি নির্মিত হয়েছে বলে শুনে আসছি। উপমহাদেশে তৎকালীন সময়ে নির্মিত ৮টি মসজিদের মধ্যে এটিও একটি। গ্রামবাসী মসজিদটিকে হারুলিয়া দক্ষিণপাড়া পুরাতন জামে মসজিদ বলে ডাকলেও এলাকায় এটি গাইনী মসজিদ হিসেবে পরিচিত।
তবে মোজাফরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. দিদারুল ইসলাম জানান অন্য কথা। তিনি বলেন, মসজিদটি রাজা লক্ষণ সেনের আমলে নির্মিত হয়েছে।
মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা নিয়ে যত জনশ্রুতিই থাকুক না কেনো, গ্রামবাসীর দাবি উপমহাদেশের প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী ধর্মীয় নিদর্শন এ মসজিদটিকে টিকিয়ে রাখতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অচিরেই যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করবেন।

One response to “৮শ বছরের পুরনো মসজিদ ॥ ঐতিহ্য রক্ষার দাবী এলাকাবাসীর”

  1. I really enjoy reading through on this site, it has good posts.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: