আজ ২৪শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৭ই মে, ২০২১ ইং

যশোরে অভিমানী স্ত্রীর আত্মহত্যা ঃ রেখে গেলেন স্বামীর উদ্দেশ্যে অভিমানী চিঠি

ভালো থাক ভালবাসার অপু। সবার কাছে প্রেম ভালবাসা অভিনয় বা খেলা নয়। কেউ কেউ ভাবে প্রেম ভালবাসা বিয়ে পবিত্র একটা জিনিষ। আরে তুমিতো কোরআন-মসজিদকে অবিশ্বাস করলে তো আমাকে কি বিশ্বাস করবে। সুখি হও। তোমার কাছে অনুরোধ আমাকে দেখতে এসো কিন্তু চোখ ঢেকে এসো। ভাল থেক। ইতি, সেতু’। স্বামীর উদ্দেশে এমনি চিরকুট লিখে যশোরে মহিমা আক্তার সেতু (১৮) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। তিনি মণিরামপুর উপজেলার স্বরণপুর গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমানের স্ত্রী।
মৃত সেতুর বড় ভাই সাগর জানান, ২০১৬ সালে একই গ্রামের নিস্তার আলীর মেয়ের সাথে আব্দুল মমিনের ছেলে মোস্তাফিজের প্রেমর্জ সম্পর্ক গড়ে উঠে। ওই বছরের ১৬ জুন তারা দু’জন পরিবারের অনুমতিতে বিয়ে করে। বিয়ের পর মোস্তাফিজুর রহমান মালয়েশিয়াতে যায়। আর স্ত্রী সেতু বাপের বাড়িতে থাকতো। স্বামীর বাড়ি যায়নি কখনো সেতু। বিদেশ থেকে ফেরার পর মোস্তাফিজুর নিজের বাড়িতে ওঠে। মাঝেমধ্যে শশুর বাড়িতে আসতো। এরমধ্যে বোদখানা এলাকার একটি মেয়ের সাথে প্রেম করে মোস্তাফিজুুর। হঠাৎ পাঁচ-ছয় দিন আগে ওই মেয়েকে বিয়ে করে ঘরে তোলে সে। এতে অভিমান করে সেতু রোববার রাতে গলায় ফাঁসদিয়ে আত্মহত্যা করে। পরে পরিবারের লোকজন পুলিশে খবর দিলে মণিরামপুর থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।
মণিরামপুর খেদাপাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই আইনুদ্দিন জানান, সেতুর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। চিরকুটটি তাদের হেফাজতে আছে। মোস্তাফিজুরের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার দায়ে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: