আজ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

যশোরে স্মার্ট কার্ড বিতরণ কোথায় কখন

যশোরে আগামী ৯ আগস্ট থেকে স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হচ্ছে। প্রথমে সদর উপজেলায় জাতীয় পরিচয়পত্র সম্বলিত স্মার্ট কার্ড বিরতণ শুরু হবে।
আগামী ৯ থেকে ১৩ আগস্ট যশোর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের ভোটারদের স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে যশোর সিটি কলেজে।
২ নং ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে ১৭ থেকে ১৯ তারিখ পর্যন্ত সম্মিলনি ইনস্টিটিউটে। একই কেন্দ্রে ২৫ থেকে ২৭শে আগস্ট বিতরণ করা হবে ৩নাং ওয়ার্ডের ভোটারদের স্মার্ট কার্ড।
এর পর ২৮ আগস্ট থেকে পহেলা সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মুসলিম একাডেমিতে বিতরন করা হবে ৪ নং ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড। ওই একই কেন্দ্রে ৩ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর ৫ নং ও ৯ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর বিতরণ করা হবে ৬ নং ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড।
এরপর এমএসটিপি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ১২ থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর ৭ নং, ১৭ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর ৮ নং এবং ২০ থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর ৯ নং ওয়ার্ডের স্মার্ট কার্ড বিতরণের মধ্যে দিয়ে শেষ হবে যশোর পৌর এলাকার ভোটারদের স্মার্ট কার্ড বিতরণ কর্মসূচী।
২৯ সেপ্টম্বর থেকে যশোর সদর উপজেলার হৈবতপুর ইউনিয়নে শুরু হবে স্মার্ট কার্ড বিতরণ কর্মসূচী। এ ইউনিয়নে আব্দুল বারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ২৯ থেকে ২অক্টোবার এবং নাটুয়াপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৩ থেকে ৪ অক্টোবার স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে। ৬ থেকে ৯ অক্টোবার লেবুতলা ইউনিয়ন, ১০ থেকে ১৪ অক্টোবার ইছালি ইউনিয়ন, ১৫ থেকে ২৩ অক্টোবার নওয়াপাড়া ইউনিয়ন, ২৪ থেকে ২৭ অক্টোবার উপশহর ইউনিয়ন, ২৮ অক্টোবার থেকে ৫ নভেম্বর কাশিমপুর ইউনিয়ন, ৬ থেকে ১৫ নভেম্বর চুরামনকাটি ইউনিয়ন, ১৪ থেকে ২০ নভেম্বর দেয়াড়া ইউনিয়ন, ২২ থেকে ২৯ নভেম্বর আরবপুর, ১ থেকে ৯ ডিসেম্বর চাচড়া, ১০ থেকে ১৮ ডিসেম্বর রামনগর, ১৯ থেকে ২৭ ডিসেম্বর ফতেপুর, ২৯ ডিসেম্বর থেকে ৩ জানুয়ারী ২০১৯ কচুয়া, ৫ থেকে ১২ জানুয়ারী নরেন্দ্রপুর এবং ১৩ থেকে ২০ জানুয়ারী বসুন্দিয়া এলাকার ভোটারদের হাতে তুলে দেওয়া হবে জাতীয় পরিচয়পত্র সম্বলিত স্মার্ট কাড।
নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রশীদ বলেন, স্মার্ট কার্ড বিতরণে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছ। স্মার্ট কার্ড বিতরণের সময় একজন পরিচয়পত্র বহনকারী তার জাতীয় পরিচয়পত্র আসল কপি সঙ্গে নিয়ে নির্বাচন কার্যালয়ে আসবেন। পরিচয়পত্র বহনকারী নারী পুরুষ তার দশ আঙুলের ছাপ, চোখের আই আর, আইএস (আইরিশ) নেয়া হবে। প্রতিজনকে এই পদ্ধতির মাধ্যমে ছাপ ও চোখের আইরিশ নিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানিয়েছে, ২০১৫ সালের ৩ নভেম্বর সম্পন্ন হওয়া হালনাগাদ তালিকা অনুযায়ী যশোর জেলায় ভোটার সংখ্যা ১৯ লাখ ৫০ হাজার ৮৯৯ জন।
তথ্যানুযায়ী, ৮ উপজেলায় নতুন ৯২ হাজার ৩২ জন ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। আর মৃত্যুসহ নানা কারণে ভোটার তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন ৯ হাজার ৫৪৮ জন। নতুন নিবন্ধিত সব ভোটারকেই জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি কার্ড) প্রদান করা হবে।
সূত্র জানায়, প্রথম পর্যায়ে ২০০৭ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ছবিসহ ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত যশোর সদরের পাঁচ লাখ ১৩ হাজার নাগরিক স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্ট কার্ড) পাবেন। যার মধ্যে যশোর পৌর এলাকার এক লাখ ৩৮ হাজার, ক্যান্টনমেন্টের ১৬ হাজার এবং সদর উপজেলার ১৫ ইউনিয়নের তিন লাখ ৫৯ হাজার নাগরিককে এই কার্ড দেওয়া হবে।
এরপর পর্যায়ক্রমে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত সকলেই এ কার্ড পাবেন। এই কার্ডে ব্যক্তির ২৮টি তথ্য লিপিবদ্ধ থাকবে। সরকারি সব অনলাইন সুবিধা, ড্রাইভিং লাইসেন্স,ট্রেড লাইসেন্স, ই-পাসপোর্ট, পাসপোর্ট, টি,আইএন প্রাপ্তি সম্পত্তি কেনাবেচা, সরকারি ভাতা উত্তোলন, বিয়ে রেজিস্ট্রেশন, ব্যাংক হিসাব খোলা, ব্যাংক ঋণগ্রহণ, সহায়তা প্রাপ্তি, বিআইএন, শেয়ার-বিও একাউন্ট, যানবাহন রেজিস্ট্রেশন, ই-গভর্নেন্স, গ্যাস-বিদ্যুৎ সংযোগ, মোবাইল সংযোগ, বীমা স্কিম, হেলথ কার্ড, ই-ক্যাশ, ব্যাংক লেনদেন এবং শিক্ষার্থীদের ভর্তির কাজ সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় সেবা নিতে এই কার্ড প্রয়োজন হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: