আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

এক নজরে বিশ্বের সেরা কয়েকটি ভ্রমণ গন্তব্য

বিখ্যাত ভ্রমণ বিষয়ক পত্রিকা, ‘লোনলি প্ল্যানেট’-এর নতুন তালিকায় স্থান পেয়েছে দশটি দেশ। বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ পর্যটন গন্তব্যগুলির এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে জার্মানি।

শ্রীলঙ্কা

লোনলি প্ল্যানেটের তালিকায় প্রতিবারের মতো এবারও এশিয়ার দেশগুলির রমরমা। তালিকার শীর্ষে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। গ্রীষ্মপ্রধান এই দেশটিতে অসাধারণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সাথে রয়েছে বৌদ্ধ বা হিন্দুদের বিভিন্ন মন্দির। এছাড়া বছরভর চলতে থাকে নানা রকমের উৎসব বা মেলা, যা দেখতে ভিড় করেন পৃথিবীর সব প্রান্তের পর্যটকেরা।

জার্মানি

ইউরোপের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এই দেশটি পর্যটনের জন্য এমনিতেই বিশ্বখ্যাত। লোনলি প্ল্যানেটের তালিকায় দ্বিতীয় স্থান কেড়ে নেওয়া জার্মানিতে আছে অসংখ্য ঐতিহাসিক স্থান ও নানা ধরনের জাদুঘর। শুধু তাই নয়, এই দেশের ‘অক্টোবরফেস্ট’-এর মতো উৎসবও টেনে আনে বিশ্বের সব প্রান্তের ভ্রমণবিলাসীদের।

জিম্বাবোয়ে

এই তালিকায় আফ্রিকার একমাত্র দেশ জিম্বাবোয়ে।

তৃতীয় স্থানাধিকারী এই দেশটি আফ্রিকার সবচেয়ে নিরাপদ গন্তব্যগুলির মধ্যে একটি। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের জন্য উদ্যান, প্রত্নতাত্ত্বিক ধ্বংসাবশেষ ও ভিক্টোরিয়া ঝর্না– সব মিলিয়ে জিম্বাবোয়ে বেড়াতে যাবার জন্য খুবই আকর্ষণীয়।

পানামা

জীববৈচিত্রে ভরা মধ্য অ্যামেরিকার এই ছোট্ট দেশে রয়েছে অসাধারণ গ্রীষ্মমন্ডলীয় বনভূমি, সাদা বালির অপূর্ব সৈকত ও তার সাথে মানানসই আদিবাসী সংস্কৃতি। সে কারণেই এই তালিকায় চতুর্থ স্থানে রয়েছে পানামা।

কিরঘিজস্তান

‘আদিবাসী অলিম্পিক’ হিসাবে খ্যাত ওয়ার্ল্ড নোম্যাড গেমস অনুষ্ঠিত হবার পর থেকেই বিশ্ব পর্যটনের কেন্দ্রে আসতে শুরু করে মধ্য এশিয়ার এই দেশটি। এছাড়া, কিরঘিজস্তানের ভিসা সংক্রান্ত প্রক্রিয়া অত্যন্ত সহজ ও দ্রুত হবার কারণে পর্যটকদের পছন্দের গন্তব্য হয়ে উঠেছে ইতিমধ্যেই।

জর্ডান

কখনো শুষ্ক খাদের মধ্য দিয়ে যাত্রা, কখনো ঘন সবুজ বন-জঙ্গল, আবার পরমুহূর্তেই মৃত সাগরের জলে গা ভাসানো– অসাধারণ এই দেশটি লোনলি প্ল্যানেটের তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে।

ইন্দোনেশিয়া

সতেরো হাজারেরও বেশি দ্বীপ মিলিয়ে গঠিত এশিয়ার এই দেশ। কিছুদিন আগে ভূমিকম্পে তছনছ হয়ে গেলেও দেশটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে অতুলনীয়। সাথে ১৬৯টি দেশের নাগরিকদের ভিসাবিহীন যাত্রার সুবিধা থাকায় পর্যটকেদের জন্য খুবই জনপ্রিয়।

বেলারুশ

শিল্পকলা চর্চার ক্ষেত্রে ক্রমেই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠা ইউরোপের এই দেশে ৩০ দিন পর্যন্ত বিনা ভিসায় ঘুরে বেড়াতে পারেন। ২০১৯ সালের ইউরোপিয়ান গেমসও অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এই দেশেই।

সাও টোমে ও প্রিন্সিপে

লোনলি প্ল্যানেটের তালিকায় বিখ্যাত দেশগুলি ছাড়াও তুলে ধরা হয়েছে এমন সব জায়গার কথা, যেসব দেশ বা স্থান সম্পর্কে এতদিন অনেকেরই তেমন কিছু জানা ছিল না। আফ্রিকার গিনি উপসাগরে দুটি মাত্র দ্বীপের এই দেশটিতে সমুদ্রের আশ্চর্য দৃশ্যের সাথে রয়েছে চিনি, কোকো ও কফির ক্ষেত, যা ব্যতিক্রমী পর্যটকদের বেশ পছন্দের।

বেলিজ

মানচিত্রে খুঁজে বের করতে হিমশিম খেতে হলেও এই তালিকায় দশম স্থানে রয়েছে ছোট্ট দেশ বেলিজ। বিশ্বের দ্বিতীয় প্রবালপ্রাচীরের সাথে সাথে বেলিজে রয়েছে অসামান্য গুহা। তুলনামূলকভাবে উপেক্ষিত হলেও মধ্য অ্যামেরিকার এই দেশটি পর্যটনের জন্য অত্যন্ত নিরাপদ।

সূত্র : ডিডাব্লিউ

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: