আজ ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

কেন্দুয়ায় যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামী গ্রেফতার

নেত্রকোনার কেন্দুয়া পৌর শহরের শান্তিবাগ মহল্লায় স্ত্রী কণিকাকে নির্যাতনের অভিযোগে স্বামী কিশোর শর্মাকে গ্রেফতার করে রবিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে নেত্রকোনা আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে শনিবার রাতে স্বামী কিশোর শর্মার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কেন্দুয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নির্যাতিত কণিকা শর্মা।

জানা গেছে, বিগত ১৯৯৭ সালের ৪ ডিসেম্বর পৌর এলাকার আরামবাগ মহল্লার বাসিন্দা মৃত হরে কৃষ্ণ শর্মার কন্যা কণিকা শর্মার সঙ্গে শান্তিবাগ মহল্লার মৃত যোগেন্দ্র শর্মার ছেলে কিশোর শর্মার সনাতন ধর্মীয় রীতি-নীতি অনুযায়ী বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই কিশোর তার স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা এনে দেওয়ার বিভিন্নভাবে চাপ সৃষ্টি করত। সুখে-শান্তিতে স্বামীর সংসার করার জন্য কণিকা বিভিন্ন সময়ে তার বাবার বাড়ি থেকে প্রায় ১০ লাখ টাকা স্বামীকে এনে দেন।
কণিকা শর্মা জানান, বিয়ের পর সুখে-দুঃখের মধ্যেই তার দুই ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। বর্তমানে বড় ছেলে লিখন শর্মা কেন্দুয়া সরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ও ছোট ছেলে আবীর শর্মা পঞ্চম শ্রেণিতে লেখাপড়া করছে। তিনি জানান, কিশোর শর্মা দীর্ঘদিন ধরে আমাদের কোনো ভরণ-পোষণ করে না। উল্টো সে আমার বাবার বাড়ি থেকে আরো  টাকা এনে দেওয়ার জন্য আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার সালিশের মাধ্যমে আপোষ মীমাংসা করলেও কিশোর চলে এর উল্টোপথে।
গত ২৮ সেপ্টেম্বর রাত অনুমান সাড়ে ১০টার দিকে কণিকাকে তার বাবার বাড়ি থেকে আরো দুই লাখ টাকা এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে। এতে রাজি না হলে কিশোর  তার স্ত্রী কণিকাকে বেদড়ক মারপিট করে সন্তানসহ ঘর থেকে বের দেয়।
কিশোর শর্মার বড় ছেলে লিখন শর্মা জানায়, তার বাবা যৌতুকের টাকার জন্য মা কণিকাকে প্রায় সময়ই শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। এতে প্রতিবাদ করলে বই পুস্তক ছিড়ে ফেলে দিয়ে আমাদেরকেও নির্যাতন করে।
এ ঘটনায় স্ত্রী কণিকা শর্মা বাদী হয়ে শনিবার রাতে স্বামী কিশোর শর্মার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কেন্দুয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
এদিকে কেন্দুয়া থানা পুলিশ কিশোর শর্মাকে রবিবার সকালে আদালতে পাঠানোর পরপরই দুপুরের দিকে কেন্দুয়া রিপোর্টার্স ক্লাবে দুই সন্তান নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন কণিকা শর্মা। সম্মেলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে কণিকা শর্মা বলেন, কিশোর শর্মা মাদকসেবী ও দুর্ধর্ষ প্রকৃতির লোক। সে জেল থেকে জামিনে এসে যেকোনো সময় আমিসহ আমার সন্তানদের খুন করতে পারে। এ জন্য আমি আদালতের কাছে জীবনের নিরাপত্তা চাই।
কেন্দুয়া থানা পুলিশের এসআই ও মামলার দতন্তকারী কর্মকর্তা নোমান সাদেকীন বলেন, যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগে স্বামী কিশোর শর্মাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: