আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২১ ইং

লালমনিরহাটে কোন নিদর্শন ছাড়াই জাদুঘর

লালমনিরহাটে প্রাচীন ঐতিহাসিক স্থাপত্য নির্দশন কাকিনা জমিদার বাড়ী কালের বিবর্তে  তার শেষ চিহ্নটুকু হারাতে বসেছে।

কাকিনা জমিদার বাড়ি ও জমিদার বংশ:
বর্তমানের  কালিগঞ্জ উপজেলাধীন কাকিনা ইউনিয়নাধীন কাকিনা মৌজায় এককালে গড়ে উঠেছিলো বড় বড় ইমারত বিশিষ্ট জমিদার বাড়ি যার সূচনা হয় ১৬৮৭ খ্রিস্টাব্দে মোগলদের দেয়া সনদমূলে। জেলায় অনেক ইতিহাসিক ও ঐহিত্যময় স্থাপনার ন্যায় আজ শুধুই স্মৃতির পথ ধরে  হাটছে কাকিনা জমিদার বাড়ি। স্মৃতি ধারণ করে  জমিদার বাড়ীতে এখন নীরবে দাড়িয়ে রয়েছে শুধু মাত্র ”হাওয়াখানা”। জানা যায় জমিদারগণের মধ্যে সবচেয়ে বেশী সময় ধরে জমিদারী পরিচালনা করেন শম্ভু চন্দ্র রায় চৌধুরী । বড় বড় ইমারত বিশিষ্ট জমিদার বাড়ি তাঁর সময়ই নির্মিত হয়েছিলো বলে উল্লেখ পাওয়া যায়।আবার জমিদার মহিমা রঞ্জন চৌধুরীর আমলে এখানে একটি যাদুঘর প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো যা বর্তমানে ‘কাকিনা মহিমা রঞ্জন স্মৃতি দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়’ নামে পরিচিত।
সেখানকার উত্তর বাংলা কলেজ এর উদ্যোগে অধ্যক্ষ এএসএম মনওয়ারুল ইসলাম ২৬ মার্চ ২০১৬ সালে “উত্তর বাংলা বিশ্ববিদ্যালয় জাদুঘর” উদ্বোধন করেন।যেখানে বাংলাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ,স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং এ অঞ্চলের ইতিহাস-ঐতিহ্যের সুষ্ঠু সংরক্ষন ও গনমানুষের কাছে তুলে ধরার কথা অথচ সে ঘরগুলো এখন তালাবদ্ধ এবং কোন ঘরে নেই কোন নিদর্শন উপরন্তু
জাদুঘরের পাশেই রয়েছে ছাত্রাবাস।  এলাকাবাসি জানান,কলেজের কোন অনুষ্ঠান হলে শুধু সেদিন খোলা হয় তা ছাড়া কোন দিন এটি রক্ষনাবেক্ষনে বা যত্ন করা হয় না। আবার নতুন প্রজন্মসহ অনেকের কাছেই অজানা এই ঐতিহাসিক জমিদার বাড়ী। এমতাবস্থায় ঐতিহাসিক এ জমিদারবাড়ীকে শেষ চিহ্নের পথ থেকে ফিরিয়ে এনে আগামী প্রজন্মের নিকট তা আকর্ষনীয় নিদর্শন হিসেবে পরিচিত করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী দৃষ্টিদানের দাবী জানিয়েছে এলাকার আপামর জনসাধারন।

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: