আজ ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

রাবি ও রুয়েটের ১২ শিক্ষার্থী পেলেন প্রধানমন্ত্রী পদক

বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রমে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখায় প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পেলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) এবং রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) ১২ শিক্ষার্থী। বুধবার বেলা ১১টায় রাজধানী ঢাকায় প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের শাপলা হলে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) আয়োজিত অনুষ্ঠানে কৃতি শিক্ষার্থীদের স্বর্ণপদক তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ক্যাম্পাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য সরাসরি সম্প্রচারকৃত পদকপ্রদান অনুষ্ঠানটি ক্যাম্পাসে প্রদর্শন করে রাবির টিএসসিসি।

ইউজিসির ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদকের জন্য বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫৯ শিক্ষার্থীকে মনোনীত করা হয়। তাদের মধ্যে রাবির ৮ জন ও অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজের ১ জনসহ মোট ৯ জন এবং রুয়েটের ৩ শিক্ষার্থীর নাম রয়েছে। বুধবার তাদের হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেয়া হয়।

এদিকে রাবির শহীদ সুখরঞ্জন সমাদ্দার ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের (টিএসসিসি) উদ্যোগে অনুষ্ঠানটি ক্যাম্পাসে সরাসরি দেখানো হয়। টিএসসিসি অডিটোরিয়ামে এই সম্প্রচার অনুষ্ঠানে রাবির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দকুমার সাহা, টিএসসিসি পরিচালক অধ্যাপক ড. হাসিবুল আলম প্রধানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

ড. হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, আমাদের ৯ শিক্ষার্থী স্বর্ণপদক পাচ্ছে, এটাতো আমাদের জন্য গর্বের বিষয়। বিশ্ববিদালয়ের অন্য শিক্ষার্থীরা যেন তাদের কৃতিত্বে উজ্জ্বীবিত হয়, সেজন্যে প্রথম বারের মত আমরা স্বর্ণপদক প্রদান অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করার উদ্যোগ নিয়েছি।

স্বর্ণপদক প্রাপ্ত রাবির শিক্ষার্থীরা হলেন, আরবি বিভাগের শিক্ষার্থী মো. আবুল ফুতুহ, আইন বিভাগের নাজমুল হাসান, অর্থনীতি বিভাগের রাশেদ আহমেদ, প্রাণ রসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের তাসনিম জাহান, জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের আজমেরী সুলতানা শিমু, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের মো. শাহা আলী, ম্যাটারিয়াল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মৌমিতা তাসনীম মীম, ফিসারিজ বিভাগের আমিরুন নিসা এবং রাবির অধিভুক্ত মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী মারভী।

রুয়েটের মনোনীত তিন শিক্ষার্থী হলেন, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মো. গোলাম কিবরিয়া, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের নাহিন উল সাদাদ এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের মেহেদী হাসান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: