আজ ৪ঠা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ ইং

উদ্বোধনের আগেই ধসে গেলো তিস্তা সড়ক সেতুর সংযোগ সড়ক 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক উদ্বোধনী তারিখ ঘোষনার দুই দিন আগেই অবশেষে তিস্তার পানির তোড়ে ধসে গেলো কাকিনা (রুদ্রেশ্বর) – মহিপুর সিমান্তে তিস্তা নদীর ওপরে দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুর উত্তরপ্রান্তের সংযোগ সড়ক। ফলে বহুল প্রত্যাশিত অর্থনৈতিক সম্মৃদ্ধির দ্বার হিসেবে বিবেচিত দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুটি এখন কার্যত লালমনিরহাটের সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে থাকলো। এদিকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ওই সড়কে স্বাভাবিক যোগাযোগ নিশ্চিত করার জন্য এলজিইডি ও পানি উন্নয়ন বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি।
স্থাণীয়রা বলছেন, স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের নজিরবিহীন গাফিলতির কারনে ৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়কের ভয়াবহ নড়েবড়ে অবস্থার মধ্যেই আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর চালু হতে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই দিন বেলা সাড়ে ১১ টায় সেতুটির উদ্বোধন করবেন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, তিন দফায় বিভিন্ন নামে নির্মাণ ব্যয় বাড়িয়ে সংস্কার করার পরেও দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুর উত্তরপ্রান্ত থেকে কাকিনা পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়কটি টিকে রাখতে পারতো কর্তৃপক্ষ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক ঘোষিত উদ্বোধনের তারিখের দু’দিন আগেই বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে সেতুর উত্তর পার্শের সংযোগ সড়কের রুদ্রেশ্বর এলাকার ব্রিজটি তিস্তার পানির তোড়ে ধসে গেছে। স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগর বাঁশেরখুটি দিয়ে সংযোগ সড়কের ওই ব্রীজ এলাকাটি আটকে দিয়েছে উৎসুক মানুষ ভির করছেন সেখানে। তারা জিও ব্যাগ ফেলে সড়কটি চালু করার চেষ্টা করছে। জরুরী প্রয়োজনে এখন সেখানে নৌকায় করে চলাচল করছেন পথচারীরা। এর আগে জুলাই মাসের বন্যায় ব্রিজের মোকা ধসে পড়লে জোড়াতালি দিয়ে সংস্কার করেছিল সংশ্লিষ্ট দফতর। ফলে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সেতুটি উদ্বোধন করলেও সহসাই কোন যানবাহন ও পথচারী সরাসরি ওই ব্রীজ দিয়ে চলাচল করতে পারবে না। নৌকা দিয়ে পার হয়ে এসে উঠতে হবে সেতুতে। সেতুটি অনেকাংশে অকার্যকর হয়ে পড়লো। এদিকে ধসে যাওয়ার এই ঘটনায় ওই এলাকার মানুষের মধ্যে প্রচন্ড ক্ষোভ বিরাজ করছে।স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি শুক্রবার বেলা ৩ টায় দৈনিক প্রনতিদিনের বাংদেশকে জানান, আমাদের দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করবেন রোববার। এরআগে সংযোগ সড়কের ব্রীজের মোকা ধসে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার ঘটনা খুবই দু:খজনক। আমি এলজিইডি এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডকে নির্দেশ দিয়েছি শনিবার বিকেল ৫ টার মধ্যেই ধসে যাওয়া অংশ সংস্কার করে পুরোপুরি যোগাযোগ উপযোগি করতে হবে। আমি নিজেই বিকেলে সেখানে সরেজমিনে গিয়ে যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়েছে কিনা তা দেখতে যাবো । তিনি বলেন, এই সংযোগ সড়ক নির্মানে অনিয়মের সাথে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: