আজ ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

উদ্বোধন হতে যাচ্ছে দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুর

আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন হচ্ছে মহিপুর দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুর।গনভবন থেকে সকাল সাড়ে ১১ টায় ভিডিও কনফারেন্সের মধ্যেমে এর আনুষ্ঠনিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা।

নবনির্মিত কাকিনা-মহিপুর দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুটির নির্মানের ফলে লালমনিরহাট জেলার যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের নতুন দ্বার। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির সাথে সাথে ব্যবসা-বাণিজ্য, কৃষি, শিক্ষা, চিকিৎসা সহ পুরো অঞ্চলের কয়েক লক্ষ মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থা ও জীবনযাত্রার মানে ইতোমধ্যে প্রভাব ফেলছে।

যোগাযোগ ব্যবস্থায় অধিকতর উন্নয়ন এবং ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক ব্যবসায়িক রুট বুড়িমারী স্থলবন্দরের সঙ্গে রাজধানী ঢাকা ও রংপুর নগরীর দূরত্ব কমিয়ে আনার জন্যই রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লক্ষীটারী ইউনিয়নের মহিপুর এলাকায় তিস্তা নদীর উপর দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতু নির্মাণ করে সরকার। এ সেতু দিয়ে রংপুর বাংলাদেশ ব্যাংকের মোড় থেকে লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা হয়ে আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতীবান্ধা ও পাটগ্রাম উপজেলার লোকজন যোগাযোগ করতে পারছে। এর সুফল পাচ্ছে রংপুরের পিছিয়ে থাকা গঙ্গাচড়া উপজেলার মানুষও।

এছাড়া পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দরের সঙ্গে সড়কপথে বিভাগীয় শহর রংপুর ও ঢাকার দূরত্ব কমেছে প্রায় ৬০ কিলোমিটার।

কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদ জানান, তিস্তা নদীতে দ্বিতীয় সড়ক সেতু নির্মাণের ফলে সারা দেশের সাথে লালমনিরহাট জেলার ৪ উপজেলার দুরত্ব কমেছে। ফলে এখন এ জেলায় কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষে শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে।

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী পারভেজ নেওয়াজ খাঁন জানান, লালমনিরহাট ও বিভাগীয় নগরী রংপুরের যোগাযোগের অন্তরায় তিস্তা নদী। সেই বাঁধা কাটাতে ২০১২ সালে ১২ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রায় ১২৩ কোটি টাকা ব্যয়ে তিস্তা নদীর উপর ৮৫০ মিটার দীর্ঘ দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুর নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তর ফলক উদ্বোধন করেন। এ বছরের শুরুতে সেতুটির কাজ শেষ হবার পর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অপেক্ষা না করে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে জনগণের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে গত এপ্রিল মাসে তা চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর গনভবন থেকে সকাল সাড়ে ১১ টায় ভিডিও কনফারেন্সের মধ্যেমে মহিপুর দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুর আনুষ্ঠনিক উদ্বোধন করবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা।

লালমনিরহাট-২ (কালীগঞ্জ-আদিতমারী) আসনের সংসদ সদস্য ও সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্জ নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন, ‘তিস্তা নদী লালমনিরহাট ও রংপুরবাসীর উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্তরায় ছিল। এ অঞ্চলের দারিদ্র্যপীড়িত মানুষকে অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরাসরি হস্তক্ষেপে মহিপুরে দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতু নির্মাণ হয়েছে। এ সেতু নিমার্ণের ফলে লালমনিরহাট জেলার কয়েক লক্ষ মানুষের জীবন যাত্রার মানের পরিবর্তন হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: