আজ ৬ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০শে জুন, ২০২১ ইং

আবারও বেপরোয়া কিশোরগ্যাং; গ্রেফতার ৪ সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সাভারের আশুলিয়ায় পুর্ব শত্রুতার জেরে হাশেমুল ইসলাম টুলুল নামের এক যুবককে মারধরের ঘটনায় কিশোর গ্যাংয়ের চার সদস্যকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

সোমবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক হারুন ওর রশিদ। এর আগে (২২ নভেম্বর) রাতে আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলো- আশুলিয়ার ভাদাইল মধ্যপাড়া এলাকার জসিম উদ্দিনের ছেলে রকি ওরফে ছোট রকি(১৮), রনির ছেলে রাকিবুল ইসলাম (১৮), পাবনা জেলার সাথিয়া থানার জাহাঙ্গীরের ছেলে সোহান (১৮), জামালপুর সদর থানার রফিকের ছেলে নাবিব (১৮)। তারা প্রত্যেকেই কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী হাশেমুল ইসলাম টুটুল (১৯) ভাদাইল পুর্বপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি একই এলাকার সিদ্দিক মাতব্বরের ইলেকট্রনিকস শো-রুমে কাজ করতেন।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, পুর্ব শত্রুতার জেরে গত ৮ জুন সন্ধ্যায় শো-রুমের কিস্তির টাকা আদায় করতে জামগড়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। জামগড়া এলাকার রূপায়ন মাঠ সংলগ্ন শাহিনের বাড়ির সামনে পৌছলে গ্রেফতাররাসহ অজ্ঞাত আরও ১০ থেকে ১২ জন তাকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। এসময় তাকে হত্যার উদ্দেশ্য দেশীয় অস্ত্র, হকিস্টিক, চাপাতি, চাইনিজ কুড়াল লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় অজ্ঞান হয়ে পড়লে মৃত ভেবে আসামিরা চলে যায়। পরে তার গোঙ্গানির শব্দ শুনে পথচারীরা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেফার্ড করা হয়। গত ১০ জুন তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হলে তারা গা ঢাকা দেয়।মামলার প্রায় ৪ মাস পর আসামীদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক হারুন ওর রশিদ জানান, আসামীরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘনটার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। তাদের দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: