আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

কেন্দুয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় কলেজ শিক্ষার্থীসহ ৪ জন নিহত ও ৩ জন আহতের ঘটনায় মামলা

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে কলেজ শিক্ষার্থীসহ চারজন নিহত ও অন্তত তিনজন গুরুতর আহতের ঘটনায় অবশেষে মামলা হয়েছে। নিহত শিক্ষার্থী শরিফের বাবা জামালউদ্দিন ভুট্টো বাদী হয়ে ঘটনারদিন রাতেই কেন্দুয়া থানায় এ মামলাটি করেছেন।
গত শনিবার বিকেলে কেন্দুয়া-আঠারোবাড়ি সড়কের মাস্কা কাঁঠালতলা নামক স্থানে মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।
পুলিশ জানায়,নিহত কলেজশিক্ষার্থী শরিফের বাবা জামালউদ্দিন ভুট্টো বাদী হয়ে ঘটনারদিন গত শনিবার রাতে এ মামলাটি করেছেন। দ-বিধির ২৭৯/৩৩৮-ক,৩০৪(খ) ধারায় (বেপরোয়া দ্রুত গতিতে গাড়ি চালিয়ে আহত ও মৃত্যু ঘটনানোর অপরাধ) দায়ের করা এ মামলায় ঘাতক বাসটির চালক,সুপারভাইজার ও হেলপারসহ অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করা হয়েছে।
উল্লেখ্য,গত শনিবার বিকেলে উপজেলার কেন্দুয়া-আঠারোবাড়ি সড়কের কাঁঠালতলা এলাকায় কেন্দুয়াগামী মায়ের দোয়া পরিবহনের একটি বাসের (নং-ঢাকা মেট্রো ব-১১-৬৪২৭) সঙ্গে আঠারোবাড়িগামী সিএনজিচালিত একটি অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে।এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিক্সার যাত্রী কেন্দুয়া ডিগ্রি কলেজের এইচএসসির দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী শরিফসহ (১৯) নাজিরউদ্দিন (২২), মুরাদ (১৭) ও সিএনজিচালক জামালউদ্দিন (৩৫) নিহত হয়। এ ছাড়া গোলাম রব্বানী, জসিমউদ্দিন ও সাকিব নামে তিন ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়। আহত ওই তিনজনকে ময়মনসিংহ ও ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) শাহজাহান মিয়া ছাড়াও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাসহ কেন্দুয়া ও ঈশ্বরগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। তবে এ সময় পুলিশ বাসটি আটক করলেও এর চালকসহ সংশ্লিষ্টরা পালিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও কেন্দুয়া থানার এসআই আশরাফুল আলম জানান, এ ঘটনায় বাসের চালক, সুপারভাইজার ও হেলপারসহ অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: