আজ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

কুষ্টিয়ায় বাসের ধাক্কায় আহত শিশু কন্যা আকিফা দুদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে চলে গেলো না ফেরার দেশে

কুষ্টিয়ার চৌড়হাস মোড় এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় মারাত্মক আহত শিশু কন্যা আকিফা দুই দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে হেরে গেলো ৷ আজ ভোর পাঁচ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি মারা গেছে । গত মঙ্গলবার সকাল ১১ টা ৪৪ মিনিটে রাজশাহী থেকে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা গঞ্জেরাজ ( ঢাকা মেট্টো-গ-১৪-০১৭৭) নামের ওই বাসের ড্রাইভার ইচ্ছাকৃতভাবেই ধাক্কা দিয়ে শিশু কন্যা আকিফা ও তার মা রিনা বেগম কে রাস্তায় ফেলে দেয় । পাশেই থাকা একটি স্বর্ণের দোকানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে স্পষ্টভাবে দেখা যায় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বাসটি হঠাৎই চলতে শুরু করে। অপরদিকে দাঁড়িয়ে থাকা বাসের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় এই মারাত্মক দুর্ঘটনাটি ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরাজানাচ্ছেন, বাসের ড্রাইভার হেলপার পুরো ঘটনাটি দেখেও এবং ঘটিয়েও দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে ।
এটি নিশ্চয় দুর্ঘটনা নয়, এটি একটি হত্যাকান্ড । এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার হওয়া জরুরী ।

এরই প্রতিবাদে গত (বুধবার) সকাল ১১ টায় এলাকার সচেতন মহল ও শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা কুষ্টিয়া চৌড়হাস মোড় ঘাতক গঞ্জেরাজ গাড়ির ড্রাইভারকে আটক করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি, চৌড়হাস মোড়ে সার্বক্ষণিক ট্রাফিক, জেব্রা ক্রসিং ও ওয়ান ওয়ে সড়কের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।
কিছুদিন আগে নিরাপদ সড়কের দাবিতে দেশব্যাপী আন্দোলনের মুখে সড়ক নিরাপত্তা আইনে বলা হয়েছে কোন ড্রাইভার যদি ইচ্ছাকৃতভাবে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে জীবনহানি ঘটায় তাহলে তার শাস্তি মৃত্যুদণ্ড । এই হত্যাকান্ডের বিচার হিসেবে ওই যাত্রীবাহী বাসের ড্রাইভারের সর্বচ্চো শাস্তি মৃত্যুদন্ড দাবি করেছেন নিহতের স্বজনরা সহ এলাকাবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: