আজ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

খুলনার ডুমুরিয়াতে মস্তিষ্ক বিকৃত মহিলা ও তার শিশুকে নিয়ে বিপাকে উপজেলা প্রশাসন

চম্পা  নামের (৩০) এক মস্তিষ্ক বিকৃত মহিলা ও তার ১৮ দিন বয়সের কন্যা শিশুকে নিয়ে ডুমুরিয়া উপজেলা প্রশাসন বিপাকে পড়েছেন। গতকাল বুধবার খর্নিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শেখ দিদার হোসেন দিদারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ইউএনও মোছা. শাহনাজ বেগম উপজেলার রানাই গ্রামের আকবর আলী গাজীর স্ত্রী কুলসুম বেগমের কাছে দুই দিনের জন্য শিশু ও তার মাকে হেফাজতে রাখার দায়িত্ব দিয়েছেন। ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের পরিবারের সদস্যদের খোঁজার জন্য ছবি পোস্ট করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
জানা যায়, গত ঈদুল ফিতরের নামাজের পর খর্নিয়া এলাকার আল-মদিনা ইটেরভাটার পরিত্যক্ত লেবার শেডের মধ্যে রাত্রে কে বা কারা মস্তিষ্ক বিকৃত এক গর্ভবতী নারীকে রেখে যান। সকালে ইটভাটার শ্রমিকরা মহিলাকে অসুস্থ অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাকে খাবার-দাবারসহ সেবাযত্ন দিতে থাকে। মহিলা তার নাম চম্পা (৩০), স্বামী রফিকুল ইসলাম গ্রাম নতুন বাজার থানা পিরোজপুর জেলা বাগেরহাট বলে পিরোজপুর এলাকার আঞ্চলিক ভাষায় জানায়। মাঝেমধ্যে অন্যান্য স্থানের নামও পিরোজপুর এলাকার আঞ্চলিক ভাষায় বলে।  এদিকে ১১ আগস্ট গভীর রাতে মহিলা পরিত্যক্ত শ্রমিকদের শেডে একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়। খর্নিয়া ইউপি সদস্য আব্দুল হান্নান শিশু ও তার মাকে সেবা যত্ন দেওয়ার জন্য নিজ বাড়ি নিয়ে যান। বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান ইউএনওকে জানান। রানাই গ্রামের আকবার আলী গাজী স্ত্রী কুলছুম বেগমের কাছে দুই দিনের জন্য রাখা হয়েছে। এ সময় শিশু এবং মাকে ইউএনও খরচ বাবদ এক হাজার টাকা প্রদান করেন। তিনি খুলনা জেলা প্রশাসকের সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: