আজ ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানী নিরসনে গাজীপুরে মতবিনিময় সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর: বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাষ্ট (ব্লাস্ট), ক্রিশ্চিয়ান এইড, নারীপক্ষ এবং এসএনভির সমন্বয়ে গঠিত সজাগ কোয়ালিশন এবং গ্লোবাল ফান্ড ফর ওমেন এর সহায়তায় “কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানী নিরসনে উচ্চ আদালতের নির্দেশনাঃ বাস্তবায়নে করণীয়” শীর্ষক একটি মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে গাজীপুরের জেলা পরিষদ ভবন এর সভাকক্ষে এ মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসভায় কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানী নিরসনে প্রয়োজন সচেতনতা এবং সরকারী ও বেসরকারী সর্বক্ষেত্রে মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী কমিটি গঠন এর দাবী করেছেন বক্তারা।

ব্লাস্টের উপ পরিচালক (আইন) এডভোকেট মো: বরকত আলী এর সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে গাজীপুর জেলা প্রশাসক এস এম তরিকুল ইসলাম বলেন, যৌন হয়রানীর ঘটনা এখোনো ঘটছে। তবে সময়ের পরিবর্তনে এর সাথে সাথে এর পরিবর্তন দরকার। এ বিষয়ে দরকার সচেতনতা, নীতি শিক্ষা, এ বিষয়ে পারিবারিক ও প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা চর্চা এবং সত্য বলার শিক্ষা প্রদান করা দরকার। উচ্চ আদালত হতে প্রাপ্ত নির্দেশনা অনুযায়ী বিভিন্ন প্রতিষ্টান ও কর্মক্ষেত্রে এ ধরনের কমিটি গঠনের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহন করা হবে বলে তিনি আশ্বাস প্রদান করেন।

বিশেষ আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন গাজীপুর মোট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার আবু লাইচ মো: ইলিয়াস জিকু। তিনি বলেন, প্রতিটি যৌন হয়রানীর ঘটনায় দরকার তথ্য প্রমান। আইন আছে কিন্তু দরকার তার বাস্তবায়ন। শুধু কর্মক্ষেত্র নয়, পথে ঘাটে, বাসায়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ সর্বক্ষেত্রে যৌন হয়রানী নিরোসনে দরকার
একটি সমন্বিত উদ্যোগ ও পারিবারিকভাবে সচেতনতা। তিনি সকলকে ৯৯৯ হটলাইন নাম্বার এর ব্যবহার করার অনুরোধ জানান।

সজাগ প্রকল্পের কার্যক্রম এর পরিচিতিমুলক একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়।কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি নিরসনে উচ্চ আদালতের নির্দেশনাসমুহ উপস্থাপনা করেন ব্লাস্টের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোঃ তৈয়্যেবুর রহমান।মাঠ পর্যায়ে কাজের অভিজ্ঞতা, কার্যক্রমের বর্তমান অবস্থা ও অগ্রগতির বিষয়টি তুলে ধরেন প্যরালিগ্যাল মামুন রানা।

এসভায় মুক্ত আলোচনায় সজাগসাথী, শ্রমিক, ট্রেড ইউনিয়ন, কারখানা মালিকপক্ষ, এনজিও প্রতিনিধি, আইনজীবী, জেলা আইন সহায়তা প্রদান কমিটি, মহিলা ও শিশু বিষয়ক জেলা কার্যালয়, ওসিসি এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় প্রতিনিধিরা বিভিন্ন মতামত তুলে ধরেন।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর জেলা লিগ্যাল অফিসার তানিয়া শার্মী, গাজীপুর কলকারখানা পরিদর্শন অধিদপ্তরের সহকারী মহা-পরিদর্শক ড. বিথি বিশ্বাস, , ব্লাস্টের উপ পরিচালক (এডভোকেসী ও কমিউনিকেশন) মাহবুবা আক্তার, নারীপক্ষের প্রকল্প পরিচালক রওশন আরা, (বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাষ্ট) ব্লাস্টের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোঃ তৈয়্যেবুর রহমান, ব্লাস্টের প্যরালিগ্যাল মামুন রানা, ব্লাস্টের সমন্বয়কারী (অ্যাডভোকেসি এবং যোগাযোগ) এর ফারজানা ফাতেমাসহ প্রমুখ।

উল্লেখ্য যে, তৈরি পোশাক শিল্পে জেন্ডার ভিত্তিক সহিংসতা নিরসনে বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাষ্ট (ব্লাস্ট), ক্রিশ্চিয়ান এইড, নারীপক্ষ এবং এসএনভি -এই চারটি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত সজাগ কোয়ালিশন ‘‘পোশাক শিল্পে কর্মরত নারীর উপর সহিংসতা প্রতিরোধ” প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। বাংলাদেশে পোশাক শিল্পে কর্মরত শ্রমিক, কর্মকর্তা, কর্মচারী সংখ্যা গরিষ্ঠ নারী হওয়া সত্ত্বেও কর্মক্ষেত্রে তাদের অধিকার রক্ষা করার প্রচেষ্টা অপেক্ষাকৃত কম।

Comments are closed.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: