আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

কলাপাড়া পায়রা বন্দরের প্রশাসনিক ভবন ও পুনর্বাসন প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধন

পায়রা বন্দরের ভূমি অধিগ্রহনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ জনশক্তি হিসাবে গড়ে তোলা হবে। পাশাপাশি সাবইকে একটি বাড়ী প্রদান করা হবে। দেশের অর্থনীতিকে গতিশীল করতে পায়রা বন্দর নির্মানে আপনারা যে ত্যাগ স্বীকার করেছেন তার জন্য এ কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

শুক্রবার (১০ আগস্ট) বেলা এগারটায় দেশের তৃতীয় সমুদ্র বন্দর পায়রার নব নির্মিত প্রশাসনিক ভবন ও পায়রা বন্দরের ভূমি অধিগ্রহনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম উদ্বোধন করার সময় এসব কথা বলেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।
নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির ভাষণে নৌমন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হয়েছে।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী-৪ আসনের সাংসদ মাহাবুবুর রহমান, পায়রা বন্দর চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা প্রশাসক ড. মাসুমুর রহমান, পুলিশ সুপার মইনুল হোসেন।
পায়রা সমুদ্র বন্দরের নবনির্মিত প্রশাসনিক ভবন পায়রা সমুদ্র বন্দরের নবনির্মিত প্রশাসনিক ভবন
১২ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫৮০০ স্কয়ার ফুটের পাঁচ তলা পায়রা বন্দর প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে। বন্দর সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে ভূমি অধিগ্রহনের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সাড়ে তিন হাজার পরিবার। এসব পরিবারের সাড়ে তিন হাজার সদস্যের মধ্যে ১৫০ জনকে কম্পিউটার, মেশন (রাজমিস্ত্রী), ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল সদস্যকে প্রশিক্ষিত করে পুনর্বাসন করার পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে। এসব পরিবারে পুনর্বাসনের জন্য ৪৯৩ একর জমিতে ১৪টি প্যাকেজের আওতায় সাড়ে তিন হাজার বাড়ি নির্মাণসহ মসজিদ, স্কুল নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
সুত্রঃ সাগরকন্যা

Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এ বিভাগের আরো সংবাদ
Share via
Copy link
Powered by Social Snap
%d bloggers like this: